‘রেল রোকো’ থেকে ভারত জুড়ে বিক্ষোভ

Facebook Twitter Google Digg Reddit LinkedIn StumbleUpon Email

একতা বিদেশ ডেস্ক : ‘রেল রোকো’ আন্দোলনে পাঞ্জাব থেকে প্রতিরোধের আগুন ছড়িয়েছে সারা ভারতজুড়ে। কেন্দ্রীয় সরকারের কৃষি বিলের বিরোধিতায় ২৫ সেপ্টেম্বর ভারতজুড়ে বনধপালন করছে বহু কৃষক সংগঠন। অমৃত্সর, দিল্লি, কর্ণাটকে রাস্তা অবরোধ করে প্রতিবাদ দেখিয়েছেন কৃষকরা। কৃষকদের আটকাতে রাজধানী দিল্লিতে নেমেছিল বিশাল পুলিশ বাহিনী। দিল্লি-উত্তর প্রদেশের সীমান্ত চিল্লা এলাকায় হয়েছে বিশাল কৃষক সমাবেশ। বিহারের দ্বারভাঙ্গায় রাস্তায় মহিষ নিয়ে প্রতিবাদে নেমেছিল কৃষকরা। বম্মানাহাললির কাছে কর্ণাটক-তামিলনাড়ু জাতীয় সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন কৃষকরা। ২৪ সেপ্টেম্বর থেকে পাঞ্জাবে তিনদিনের ‘রেল রোকো’ আন্দোলনে নামে সে রাজ্যের প্রায় ৩১টি কৃষক সংগঠন। ভারত বনধের মধ্যে পালিত হয় সেই কর্মসূচিও। বনধের শুরুতে প্রবল প্রাকৃতিক দুর্যোগ উপেক্ষা করে পশ্চিমবঙ্গের রায়গঞ্জে পথে নামেন কৃষক, ক্ষেতমজুরেরা। বৃষ্টি মাথায় করেই এদিন জাতীয় সড়ক অবরোধ করেন তারা। ২৪ সেপ্টেম্বর থেকে বেশ কিছু রাজ্যে কৃষকদের রেল অবরোধ পথ রোধ শুরু হয়ে যায়। ভারতের হরিয়ানাতে চলে সড়ক ও রেল অবরোধ। কিছু রাজ্যে বিজেপি বিধায়ক সাংসদদের সামাজিকভাবে বয়কটের ডাক দিয়েছে কৃষক সংগঠনগুলো। সংঘর্ষ সমিতি জানিয়েছে মোদী সরকার কৃষি বিলের নামে কৃষকদের কর্পোরেট দাসত্ব করার পরোয়ানা লিখে দিয়েছে। তা বরদাস্ত করবে না দেশের কৃষক সমাজ। ২৫ সেপ্টেম্বর সকালে দিল্লির যন্তর-মন্তরে বিক্ষোভ সমাবেশে শামিল হন কৃষকরা। পাঞ্জাব ইতিমধ্যেই কৃষি বিল বিরোধী সংগ্রামে উত্তাল। রাজ্যের কৃষক সংঘর্ষ সমিতির ডাকে ২৪ সেপ্টেম্বর থেকেই পাঞ্জাবে শুরু হয়ে গেছে তিন দিনের রেল অবরোধ। রেল কর্তৃপক্ষ এদিন পাঞ্জাবের মোট ১৪ জোড়া বিশেষ দূরপাল্লার ট্রেন বাতিল করেছে। এখনও রেল পরিষেবা পুরো চালু না হলেও বিশেষ দূরপাল্লার ট্রেন চালু হয়েছে পাঞ্জাবে। বাতিল হওয়া ট্রেনের মধ্যে রয়েছে গোল্ডেন টেম্পল এক্সপ্রেস, জন শতাব্দী এক্সপ্রেস, নয়া দিল্লি জম্মু তাওয়াই এক্সপ্রেস, সাচখণ্ড এক্সপ্রেস, শহীদ এক্সপ্রেস। এছাড়াও বেশ কিছু পণ্যবাহী ট্রেন বাতিল করা হয়েছে। পাঞ্জাবে বিক্ষোভ কর্মসূচি নিয়ে সংঘর্ষ সমিতির সভাপতি সতনাম সিং পানু জানান, রাজ্যে বিভিন্ন অংশের মানুষ কৃষক আন্দোলনে সমর্থন জানিয়েছেন। কৃষকরা ইতিমধ্যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সামাজিকভাবে বয়কট করা হবে বিজেপি নেতা ও সাংসদদের। পথে বিজেপি নেতা মন্ত্রীদের ঘেরাও করার কর্মসূচি নেওয়া হচ্ছে। সংসদে বিলের পক্ষে যাঁরা মত দিয়েছেন তাঁদের বয়কটের ডাক দিয়েছেন পাঞ্জাবের কৃষকরা। পানু বলেন, কেন্দ্রের সরকার বিল এনে ফসলের ন্যূনতম সহায়ক মূল্য তুলে দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে বলে মনে করছে কৃষকরা। আর নতুন কৃষিবিলের প্রতিবাদে মোদির মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেছেন পাঞ্জাবের অকালি দলের নেত্রী হরসিমরত কৌর বাদল। বিজেপির পুরনো জোটসঙ্গী ও এনডিএ জোটের অন্যতম শরিক দলের এই নেত্রী সোশ্যাল মিডিয়ায় তার পদত্যাগের খবর নিশ্চিত করেন। টুইটারে হারসিমরত লিখেছেন, ‘সরকারের কৃষকবিরোধী অর্ডিন্যান্স এবং আইনের প্রতিবাদে আমি কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা থেকে ইস্তফা দিয়েছি। কৃষক এবং তাদের ভাইবোনদের পাশে থাকতে পেরে আমি গর্বিত।’ কৃষি প্রধান রাজ্য উত্তর প্রদেশ ছিল কৃষক বিক্ষোভে উত্তাল। উত্তর প্রদেশের সমাজবাদী পার্টির নেতা অখিলেশ যাদব জানান, কৃষি বিল পুরোপুরি কৃষক স্বার্থবিরোধী। সরকার চাল গম নিয়ন্ত্রণের বাইরে নিয়ে আসায় কৃষকদের কর্পোরেটের কাছে নতজানু হয়ে তাদের শর্তে ফসল বিক্রি করতে হবে। উত্তর প্রদেশের কৃষকদের এতে বড় ক্ষতি হয়ে যাবে। তাই কৃষি বিল মানবে না কৃষকরা। দেশজোড়া কৃষক বিক্ষোভ শামিল হবেন উত্তর প্রদেশের কৃষকরাও। ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের প্রস্তাবিত কৃষি বিলের তিনটি সংশোধনীই কৃষকদের স্বার্থরক্ষায় এবং সুরক্ষা বৃদ্ধির জন্য করা হয়েছে বলে দাবি বিজেপি নেতৃত্বাধীন সরকারের। ‘দি ফার্মার্স প্রডিউস অ্যান্ড কমার্স (প্রমোশন অ্যান্ড ফেসিলিটেশন) বিল’, ‘দি ফার্মার্স (এমপাওয়ারমেন্ট অ্যান্ড প্রটেকশন) বিল’ এবং ‘দি এসেনশিয়াল কমোডিটিস (অ্যামেন্ডমেন্ট) বিল’ এই তিনটি বিল পাশ হলে কৃষকদের অনেকটাই সুবিধা হবে বলে একাধিকবার দাবি করেছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীরা। লোকসভায় নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতায় বিলও পাশ হয়ে যায়। কিন্তু বিলটিকে প্রত্যাখান করে বনধের ডাক দেয় ভারতের ৩১টি কৃষক সংগঠন নিয়ে গঠিত কিষান মজদুর সংঘর্ষ সমিতি। আর কেন্দ্রীয় সরকার সংসদে গণতান্ত্রিক রীতিনীতি ভেঙে যে কৃষি ও কৃষক বিরোধী বিল পাশ করিয়েছে তার বিরুদ্ধে বিধানসভায় প্রস্তাব গ্রহণের জন্য অবিলম্বে বিশেষ অধিবেশন ডাকার দাবি জানায় বামফ্রন্ট, কংগ্রেসসহ বিরোধীদলগুলো। এমনকি পাঞ্জাবের অকালি দলকে এনডিএ’র জোটসঙ্গী হয়েও নিজেদের অবস্থান বদল করতে হয়। দাঁড়াতে হয় নিজ রাজ্যের কৃষকদের পাশে।

Print প্রিন্ট উপোযোগী ভার্সন



Login to comment..
New user? Register..